ভোলায় ভয়াল ১২ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় গোর্কির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে উদ্যোগ এর আয়োজনে স্মরণসভা

ভোলায় ভয়াল ১২ নভেম্বর ঘূর্ণিঝড় গোর্কির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে উদ্যোগ এর আয়োজনে স্মরণসভা

ইয়াছিনুল ঈমন , ভোলা প্রতিনিধি ॥

ভোলায় ৭০’র ভয়াল ১২ নভেম্বরের জলোচ্ছ্বাস ও ঘূর্ণিঝড়ের স্মরণে “বেদনার পঞ্চাশ বছর” শীর্ষক স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোকিত মানুষ ও সুস্থ সমাজের লক্ষ্যে “উদ্যোগ” এর আয়োজনে বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ভোলা জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
দৈনিক আজকের ভোলা সম্পাদক আলহাজ্ব মুহাম্মদ শওকাত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার ছিলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল মমিন টুলু। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মামুন আল ফারুক।
অনুষ্ঠানে ৫০ বছর আগের সেই ১২ নভেম্বরের বেদনার্ত স্মৃতিচারণ করেন প্রবীণ সাংবাদিক দৈনিক বাংলার কন্ঠের সম্পাদক এম হাবিবুর রহমান ও বিটিভি জেলা প্রতিনিধি প্রবীন সাংবাদিক এম এ তাহের। স্মৃতিচারণ করে আরো বক্তব্য রাখেন, সমাজসেবী ও ব্যবসায়িক গোলাম কিবরিয়া জাহাঙ্গীর, মুক্তিযোদ্ধা ও সমাজসেবী জিয়াউল কুদ্দুস লিয়াকত, জেলা কমিউনিষ্ট পার্টির সভাপতি মোবাশ্বের উল্ল্যাহ চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিক মাহাবুবুল আলম নিরব মোল্লা।
আলোচনায় অংশ নেন রেড ক্রিসেন্ট জেলা সেক্রেটারী ও সদর উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আজিজুল ইসলাম, আরটিভি জেলা প্রতিনিধি অমিতাভ রায় অপু, ইলিশা ইসলামিয়া মডেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাজহারুল ইসলাম, ভোলা নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক এসএম বাহাউদ্দিন প্রমূখ।
ভোলা জেলার ইতিহাস থেকে সত্তরের মহাপ্লাবন বিষয় উপস্থাপন করেন আবৃত্তিশিল্পী মশিউর রহমান পিংকু, স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করেন কবি অধ্যাপক হাওলাদার মাকসুদ। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা মীর বেলায়েত হোসেন। আলোচনা শেষে ভয়াল ১২ নভেম্বরে জলোচ্ছাসে নিহত লাখো লাখো মানুষের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন ফেরদাউস (খলিফাপট্টি) জামে মসজিদের খতিব অধ্যক্ষ মাওলানা মুজির উদ্দিন।
ব্যাংকের হাট কো-অপারেটিভ কলেজের প্রভাষক আবৃত্তি শিল্পী মোঃ ইভান তালুকদারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ব্যাংকেরহাট কো-অপারেটিভ কলেজের অধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ, বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সেলিম, ভোলা আলিয়া মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ ও জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সেক্রেটারি মাওলানা মোবাশ্বেরুল হক নাঈম, মুসলিম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবু তাহের, মাসুমা খানম গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইব্রাহিম, হালিমা খাতুন গালর্স স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যাপক মোঃ শফিকুল ইসলাম, নাজিউর রহমান কলেজের অধ্যাপক মোঃ শাহীন, হালিমা খাতুন গালর্স স্কুল এন্ড কলেজের আইসিটি শিক্ষক মোঃ সিরাজুল ইসলাম, চ্যানেল-১৪ এর জেলা প্রতিনিধি আদিল হোসেন তপু, বাসস এর স্টাফ রিপোর্টার ইসনাইন আহম্মেদ মুন্না, এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি মোঃ বিল্লাল হোসেন, দৈনিক ভোরের পাতার জেলা প্রতিনিধি মোঃ ফরহাদ হোসেন, বাল্যবিয়ে ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম শাহরিয়ার জিলন, দৈনিক আজকের ভোলার স্টাফ রিপোর্টার এম মইনুল এহসান, সাংবাদিক মাসুদ রানা, ভোলা ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান সোলাইমান মামুন, ভোলা ব্লাড ডোনেট ক্লাবসহ বিভিন্ন পেশা ও সংগঠনের দায়িত্বশীল প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় পৃথিবীর ভয়াবহতম দুর্যোগ-দুর্বিপাক ভয়াল ১২ নভেম্বরের দুর্যোগকে পাঠ্যসূচীর অন্তর্ভুক্ত করা, ভোলার পুরানো বেরিবাঁধ সমূহকে কমপক্ষে ১৬ ফিট উঁচু করাসহ নভেম্বরকে “উপকূল দিবস” হিসেবে ঘোষণা এবং উপকূলের চরাঞ্চলের মানুষের জীবনের নিরাপত্তা ও ভবিষ্যৎ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য দীর্ঘস্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© AMS Media Limited
কারিগরি সহায়তা: Next Tech