কাউন্সিলর পদে ৭নং ওয়ার্ডে ত্রিমুখী লড়াই: এগিয়ে রাশেদ জমাদার 

শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ০৩:০৯ পূর্বাহ্ন

News Headline :
কয়রায় পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষের খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকট, পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব বগুড়ায় নিখোঁজ রফিকুলের ১১ মাস পর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার গ্রেফতার ৪ শরণখোলায় সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে আসা একটি হরিন উদ্ধার আওয়ামী লীগের ওয়েবসাইটে এমপি মুকুলের ত্রান বিতরন কার্যক্রম বোরহানউদ্দিন প্রশাসনের মানবতায় ঠাই পেলো শিশু সন্তানসহ মা নড়াইলের লোহাগড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু থানায় ঢুকে পুলিশকে লাঞ্চিত করেছে আসামীর পিতা বগুড়ায় স্পিরিট পানে দুই বন্ধুর মৃত্যু বগুড়া সদরে করোনা রোগী সবচেয়ে বেশি ঘুর্ণিঝড় আম্পানে মোংলায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা

কাউন্সিলর পদে ৭নং ওয়ার্ডে ত্রিমুখী লড়াই: এগিয়ে রাশেদ জমাদার 

স্টাফ রিপোর্টার:

ভোলার লালমোহন পৌরসভার নির্বাচন ১৪ অক্টোবর। সব ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরাই প্রচারণা আর নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে সাধ্যমত চেষ্টা করছেন ভোটারদের মন জয় করতে। সে প্রচারণার সমাপ্তি ঘটছে আজ(১২ অক্টাবর) রাত ১২টার পর থেকে। পৌরসভার ১২টি ওয়ার্ডেই আ’লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের ছড়াছড়ি। বলতে গেলে আওয়ামী লীগই যেন আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী বলে মনে করছেন অনেক ভোটার। পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে প্রার্থী ছিলেন চার জন। এর মধ্য একজন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে সক্রিয় নন। তিন জন প্রার্থী রয়েছেন এ ওয়ার্ডটিতে। তিনজনই আ’লীগ সমর্থিত।প্রার্থীরা হলেন- বর্তমান কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলাম নবীন টেবিল ল্যাম্প প্রতীক, সোহেল আহমেদ সোহেল ডালিম প্রতীক,রাশেদ জমাদার উট পাখি প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে লড়ছেন। টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের জাহিদুল ইসলাম নবীন বাদে অন্য দুই প্রার্থীই এবারই প্রথম নির্বাচন করছেন। অনুসন্ধানে জানা গেছে, তিন প্রার্থীরই রয়েছে আলাদা ব্যাক্তি ইমেজ,ভোটের মাঠে সমান জনপ্রিয়তা থাকায় তিন প্রার্থীর মধ্যেই হাড্ডা-হাড্ডি লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে উট পাখি প্রতীকের প্রার্থী রাশেদ জমাদার সমর্থনে এগিয়ে অনেকটা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন এদিকে, টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান কাউন্সিলর ক্রিয়া সংগঠক জাহিদুল ইসলাম নবীন বিগত ৯ বছর ধরে কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নম্র,ভদ্র সজ্জন ব্যাক্তি হিসেবে এলাকায় তাঁর জনশ্রুতি রয়েছে। তাঁর নিজ মহল্লা সহ ওয়ার্ডে একটি ভোটব্যাংক রয়েছে। যেটি তাঁকে বিগত নির্বাচনে বিজয়ের মুকুট পরাতে সহায়তা করেছে। তবে তাঁর ভোট ব্যাংকে ভাগ বসিয়েছেন ডালিম প্রতীকের প্রার্থী সোহেল আহমেদ। সোহেল আহমেদ এবারই প্রথম নির্বাচন করছেন। এলাকায় তিনিও সজ্জন মানুষ হিসেবে পরিচিত। সোহেল নিজ মহল্লা সহ কলেজ পাড়ার একাংশের ভোটারদের সমর্থন আদায় করেছেন। যেখানে জাহিদুল ইসলাম নবীনের একচেটিয়া সমর্থন ছিল। নবীনের ভোট এ দু’জন প্রার্থীর মধ্য ভাগাভাগি হবে বলে মনে করছেন এলাকার সাধারণ ভোটাররা। এদিক বিবেচনায় ভোটের মাঠে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন উট পাখি প্রতীকের প্রার্থী রাশেদ জমাদার। তিনি এ ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ‘মোরশেদ আলম দয়ালের ভাতিজা। মোরশেদ আলম দীর্ঘ ১৯ বছর ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে সততা, সুনাম ও দক্ষতার সহিত দায়িত্ব পালন করেছেন। তাঁর উত্তরসূরী হিসেবে ভোটের মাঠে লড়ছেন রাশেদ জমাদার। ক্লিন ইমেজের তরুণ প্রার্থী হিসেবে তিনি এলাকায় তরুণ ও যুব সমাজের সমর্থন আদায় করেছেন। বিগত সময়েও এলাকার মানুষের সুখে দুখে পাশে ছিলেন। রাশেদ জমাদার নিজ মহল্লায় একক প্রার্থী ও ঐতিহ্যবাহী জমাদার বংশের প্রতিনিধি হয়ে নির্বাচনে লড়ছেন। জমাদার বংশে তাঁর ভোট ব্যাংক রয়েছে। এলাকাবাসীরা জানান, তিনি ‘জমাদার বংশের’ একচেটিয়া সমর্থন পেয়েছেন।নিজ মহল্লা বাদে ওয়ার্ডের অন্যান্য মহল্লাতেও তাঁর সমর্থন রয়েছে। পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডেই তরুন প্রার্থীদের সমর্থন করছেন ভোটাররা। পরিবর্তনের হাওয়ায় নিজ মহল্লাসহ বংশের সকল ভোট ‘উট পাখি’ প্রতীকে পরলে তাঁর জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা শতভাগ। সূত্রে জানা গেছে,৭নং ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা প্রায় ১৩৮০ জন। ‘নির্বাচনকে ঘিরে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রথমবারের মতো লালমোহনে ইভিএম-এ ভোট হচ্ছে। নির্বাচনকে ঘিরে ব্যাপক সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।’

Please Share This Post in Your Social Media










© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD