বেনাপোলে ৮ম শ্রেণির ছাত্রী নিখোঁজ ৫ দিন

শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

বেনাপোলে ৮ম শ্রেণির ছাত্রী নিখোঁজ ৫ দিন

নজরুল ইসলাম, যশোর প্রতিনিধি:
বেনাপোলে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী ৫ দিন আগে নিখোঁজ হলেও এখনও তার সন্ধান মেলেনি। তবে শার্শার টেংরা গ্রামের এক ছেলের বিরুদ্ধে তাকে ফুঁসলিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে পোর্ট থানার পুটখালী গ্রামে। এ ব্যাপারে জড়িত থাকার অভিযোগে একজন আটক হলেও উভয়পক্ষের সালিশের পর থানা থেকে আটককৃতকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ওই ছাত্রীর বাবা রাছেল হোসেন বলেন, ৩ আগস্ট তার মেয়েকে শার্শার টেংরা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে সজীব ফুঁসলিয়ে নিয়ে গেছে।

আমার মেয়ের বয়স মাত্র ১৩। ৫ দিন যাবৎ আমার মেয়েকে উদ্ধারের জন্য চেষ্টা করছি কিন্ত এখনো কোনো সন্ধান মেলেনি। তবে এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। সজীবের সাথে আশিক নামে একজন জড়িত থাকার অভিযোগে আটক হয়েছে। মেয়েটির দাদি ছকিনা খাতুন, ফুফু শিল্পী খাতুন ও কাকা ফিরোজ বলেন, টেংরা গ্রামের সজীব নামে ছেলেটি তার ভাগ্নিকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে গেছে। আমরা এর বিচার চাই।

শিল্পী বলে, আশিক আটক হওয়ার পর তার আত্মীয়স্বজন আমাদের বাড়িতে এসে ভয়ভীতি দেখিয়েছে। বিষয়টি মীমাংসার জন্য চাপ সৃষ্টি করলে গ্রামের লোকজনের মাধ্যেমে মেয়েটিকে ৫ দিনের মধ্যে ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে আশিককে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়েছে। মেয়েটির মা বলেন, তার মেয়ের সাথে সজিবের সম্পর্ক ছিল। তার মেয়ের বিয়ের জন্য অন্যত্র পাত্র দেখাদেখি এবং বিয়ে পাকাপাকি হওয়ার পর তার নাবালক মেয়েকে ফুঁসলিয়ে ওই ছেলে নিয়ে গেছে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, প্রভাবশালীদের চাপে মেয়ের পিতা রাছেল সালিশের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছে। এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই জাকির হোসেন বলেন, পুটখালী গ্রামের ওই ঘটনায় উভয়পক্ষের অভিভাবকরা বসে আপোশ করে আটক আশিককে নিয়ে গেছে। মেয়ের বাবা রাছেল হোসেন ওই সালিশে থেকে সব কিছু মেনে নিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media











© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD