করোনাকালীন সময়ে ভালো কাজে নজর কেড়েছেন সাংসদ আক্তারুজ্জামান বাবু

মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৩৩ অপরাহ্ন

News Headline :
কুড়িগ্রামে আগাম শীতে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ এর আশংকা পঞ্চগড়ের কালীগঞ্জে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম ও দূর্নীতি অভিযোগ, আদালতে মামলা কয়রায় পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন আওয়ামীলীগ নেতা বাহারুল ইসলাম  ত্রিশালের পৌর পূজামন্ডপ পরিদর্শনে ছাত্রলীগ সভাপতি  যশোরে গলাকেটে ব্যবসায়ীকে হত্যা ভৈরব নদী থেকে উদ্ধার কুড়িগ্রামে বলাৎকারের ঘটনায়  অভিযোগ করায় বাড়িতে হামলা কুড়িগ্রামে জেলা পর্যায়ে গোদরোগ নিমুর্লে সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত কয়রায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি, থানায় জিডি ত্রিশালে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে ফুল দিয়ে বরণ করেন এমপি মাদানী কুড়িগ্রামে পুঁজায় নতুন পোষাক পেল  শতাধিক হরিজন শিশু

করোনাকালীন সময়ে ভালো কাজে নজর কেড়েছেন সাংসদ আক্তারুজ্জামান বাবু

ওবায়দুল কবির সম্রাট, কয়রা খুলনা:
বর্তমান সরকারের অধীনে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে বাংলাদেশ। সামনে থেকে যার নেতৃত্ব দিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, দেশরত্ন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার নেতৃত্বই দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত করছে। তিনি দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছেন। স্বতন্ত্র উন্নয়ন-পরিকল্পনা, নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আর্থিক জোগান, প্রাকৃতিক সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবহার আর মানবসম্পদকে দক্ষ করে কাজে লাগানো- এগুলোর সমন্বয়ের মাধ্যমে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বংলাদেশ।প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের এই ধারায় হাওয়া যোগাচ্ছেন মাননীয় সাংসদরা। বয়োজ্যেষ্ঠ-তরুণ সকল এমপিদের একান্ত পরিশ্রমে তরতর করে উন্নয়নের সোপানে বাংলাদেশ।

এমপিদের মধ্যে অনেক তরুণ এমপি নজর কেড়েছেন পুরো বাংলাদেশের তথা তরুণ প্রজন্মের।ঠেক তেমনি ভালো কাজে নজর কেড়ে খুলনা -৬ আসনের (কয়রা-পাইকগাছা) সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু এলাকার মানুষের আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছেন ধীরে ধীরে। বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাস ও ঘূণিঝড়ে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা সংকটময় মুহূর্তে এলাকাবাসীর উপর এর প্রভাব সৃষ্টির পর থেকেই নিজের নির্বাচনী এলাকা ছাড়েননি।

অসহায়, দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাড়িয়েছেন।তার নেতৃত্বে হট লাইন, নিজে ও নেতা কর্মীর মাধ্যমে অসহায়, হতদরিদ্র ও অভাবীদের বাড়ি বাড়ি পৌছে দিচ্ছেন মানবিক সহায়তা। গরিব-অসহায় এবং নিম্নবীত্তদের ঘরে খাবারসহ সহায়তা সামগ্রী পৌঁছে দেয়ার কাজ অব্যাহত রাখার কথা জানালেন এ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।তিনি তার কর্ম দক্ষতায় স্থাথানীয় জনগণসহ সর্বমহলের মানুষের আস্থা ও ভালোবাসা অর্জন করেছেন। তিনি হাঁকে-ডাকে সবসময় সাধারণ জনগনের পাশে থেকে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে চলেছেন ক্লান্তিহীনভাবে। স্থানীয় কেউ কোনো সমস্যায় পড়লে জনগণ তাকে স্মরণ করেন, কারন তারা জানেন তার কাছে গেলে একটা সুরাহা হবে। এমন একজন সংসদ সদস্য পেয়ে গর্বিত কয়রা – পাইকগাছাবাসী।শুধু বর্তমানে করোনা ও আম্পান কালিন সময়ে নয়, ৯০’র দশকের আগে থেকে তিনি জনসেবায় নিজেকে সম্পৃক্ত করেছেন ছাত্র থাকাকালীন সময়ে।

তিনি সাবেক হুইপ ও সাবেক খুলনা – ৪ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফা রশিদী সুজার একনিষ্ট, আস্থাভাজন কর্মী ছিলেন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরকারের সভাপতি শেখ হাসিনা ও তার সরকারের হাতকে শক্তিশালী করতে করোনা-আম্পান পরিস্থিতির মধ্যেও প্রতিটা মুহূর্তে জনগনের সেবা করে যাচ্ছেন। তিনি কয়রা -পাইকগাছা উপজেলার ১৭ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌর সভায় তিনি সাধারন মানুষের পাশে থেকে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে সর্বদা জনসেবায় কাজ করে চলেছেন।দেশের দুর্যোগপূর্ণ সময়ে উপজেলাবাসী ও ইউনিয়নবাসীকে করোনা বিষয়ে সচেতন করতে ও কর্মহীন ঘরে থাকা পরিবার গুলোর খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দিন-রাত কাজ করে সাধারণ মানুষের মনিকোঠায় জায়গা করে নিয়েছেন। ওটে গেছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে। দেশে করোনা প্রাদূর্ভাব দেখা দেয়ারসাথে সাথেই সরকারি নির্দেশনা মতে জনসমাগমকে নিরোৎসাহিত করতে নিরলসভাবে প্রতিদিন গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে ছুটে চলেছেন।

সরকারী সহায়তার ও ব্যক্তিগত তহবিল থেকেও ৩০ হাজার পরিবারের জন্য খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনস্বার্থে প্রতিদিন কাকডাকা ভোর হতে গভীর রাত পর্যন্ত এলাকায় ঘুরে ঘুরে জনগনের খবর নিচ্ছেন।সাহায্য করছেন বাড়িয়ে দিচ্ছেন সহযোগীতার হাত।সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবুর জনহিতকর কর্মকান্ড এলাকায় ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

কয়রা – পাইকগাছার বিভিন্ন ইউনিয়নের মানুষ বলতে শুরু করেছেন প্রতিটি জনপ্রতিনিধি এমপি যদি এমপি আক্তারুজ্জামান বাবুর মত হতেন তবে বাংলাদেশ সত্যিকারের সোনার বাংলায় পরিণত হত।স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা কর্মী ও সাধারন জনগণ জানান, সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু করোনা ও আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ, ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্প, ফ্রি ওষুধ বিতরণ, সুপেয় পানির সরবরাহ, ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত পানি বন্দি মানুষদের মুক্ত করতে কয়রা -পাইকগাছা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের একাধিক ভাঙ্গনে স্থানীয় জনগনকে ঐক্যবদ্ধ করে স্বেচ্ছাসেবক বাঁধ নির্মাণ, পানি বন্দি মানুষের প্রতিদিন সুপেয় পানির ব্যবস্থা, শুকনা খাবার, স্যালাইন বিতরণ করেছেন।

কয়রা সদরের গোবরা ঘাটা খালি, ২নং কয়রা হরিণখোলা, উত্তর বেদকাশি গাজী পাড়া, হাজত খালি,রত্না ঘেরী, মহারাজপুর দশহালিয়া সহ ১০ থেকে ১২টি পয়েন্টে স্থানীয় জনগনকে সাথে নিয়ে কাজ করেছেন।সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে,এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু এই দুর্যোগের মধ্যে এলাকায় অবস্থান করে জনগনের জন্য যে কাজ করেছেন তা অন্য কোনো এমপি করেনি।এমপি বাবু যদি করোনার শুরু থেকে ও ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পরপরই সহযোগিতা না করতো তাহলে হয়তো আমরা আজ ঘরছাড়া হতাম। বাঁধ ভাঙ্গা জোয়ারের পানিতে এখনো গোটা এলাকা বাঁসিকে পানির নিচে ডুবে থাকতে হতো।

তারা বলছেন আমরা এরকম একজন এমপিকে পেয়ে খুশি। যিনি সবসময় হাঁকে -ডাকে আমাদের পাশে থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।তাই আমরা এমপি আক্তারুজ্জামান বাবুর প্রতি কৃতজ্ঞ।কয়রা উপজেলার দক্ষিণ বেদকাশী ইউনিয়নের বাসিন্দা অসহায় বিধবা আম্বিয়া বলেন, এমপি সাহেব করোনাভাইরাস ও তার পরবর্তী সময়ে কয়েকবার আমাদের অজো পাদাড় গায়ে নিজের এসে এলাকায মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ছুটে চলেছেন এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রাম।

আমরা এমন এমপি আগে দেখিনি। তার দেশ ও জন বান্ধব কর্মকাণ্ড কয়রায় সর্বত্র আলোড়ন সৃৃৃৃষ্টি করেছে। কয়রা সদরের ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির বলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু কয়রা বাসীসহ কয়রার সার্বিক উন্নয়নে নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করে চলেছেন। এমন নিষ্টা ও গুণাবলী সম্পন্ন এমপি পেয়ে আমরা কয়রা বাসী গর্বিত। কয়রা কপোতাক্ষ কলেজের অধ্যাক্ষ আদ্রিশ আদিত্য মন্ডল জানান, ভাবতেই অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে,এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু সরকারের শুভ উদ্যোগের বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে সবকিছুর হিসেব-নিকেষ ভুলে কাজ করে চলেছেন ঘড়িকে বুড়ো আঙুলদেখিয়ে: দেশের জন্য; মানুষের জন্য।

এ এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু স্বাধীন বাংলার। এ এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু জনসেবার।কয়রা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল কুমার সাহা বলেন,সাধারণ মানুষের জন্য এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু স্যারের রয়েছে গভির মমত্ববোধ। তিনি কোভিট ১৯ ও আম্পান পরবর্তী সময়ে বট বৃক্ষের অসহায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে। তার নেতৃত্বে আগামী দিনে টেঁকসই বেঁড়িবাধসহ উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে মডেল উপজেলা হিসাবে কয়রা বাংলাদেশে একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান করে নেবে।

এ ব্যাপারে খুলনা -৬ সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু জানান, দুঃখী মানুষের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশে সরকারি ও ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ব্যাপক খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে। সরকার করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ভিজিএফ, ভিজিডি, ১০টাকা কেজি চাল ও বিশেষ খাদ্য সহায়তা দিতে যে ব্যাপক ব্যবস্থা নিয়েছে তার সঠিক বাস্তবায়ন হলে কোনো মানুষই অভুক্ত থাকবে না। তিনি বলেন, নির্বাচনের সময় যে ভাবে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চেয়েছি, ঠিক সেভাবেই আমার নেতৃত্বে ও আমিনিজে খাদ্য সামগ্রী অসহায়দের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছি।

ঝুঁকি জেনেও কাজ করতে হচ্ছে মানুষের জন্য। এ কারনে দূরত্ব বেড়েছে পরিবারের সাথে। দিন শেষে একমাত্র সন্তানকে ভালোবেসে বুকে জড়িয়ে ধরার আঁকুতিতে ছেদ ঘটিয়েছে ভয়ঙ্কর করোনা। তবে দেশ, মাটি ও মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতা শক্তি ও সাহস যুগিয়েছে প্রতিকুল পরিস্থিতি মোকাবেলার। জনগণের পাশে থেকে আমৃত্যু সেবাব্রতের কথা উল্লেখ করে নিষ্ঠাবান এ রাজনীতিক জানালেন, আপনারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এতে অংশগ্রহণ করুন, রচিত হোক এক উপাখ্যান। হোক মানবতার জয়। ঘরে থাকুন। নিরাপদে থাকুন।

Please Share This Post in Your Social Media











© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD