খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে শারীরিক কোন উপসর্গ নাই অর্ধেকের বেশি ভর্তি রোগীদের

শুক্রবার, ০৭ অগাস্ট ২০২০, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন

News Headline :
যশোরে করোনা আক্রান্ত রোগী সংখ্যা দুই হাজার সুবর্ণচরে বয়স্ক ভাতার ঘুষ নিয়ে দ্বন্ধের জের ধরে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা, আটক ৩ কয়রায়  শিশু ও কিশোর-কিশোরী ক্লাবে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ মু‌ক্তি‌যোদ্ধা‌দের অপ‌রিসীম ভূমিকা র‌য়ে‌ছে: এমপি আক্তারুজ্জামান বাবু  গাইবান্ধায় মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে গাঁজা ও হেরোইন উদ্ধার করেছে পুলিশ মোংলায় নন এমপিও শিক্ষক-শিক্ষিকা-কর্মচারিদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে চেক বিতরণ মোংলায় দিপুমৃধার স্বাস্থ্য সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরন গিনেস বুকে রেকর্ড গড়ায় বরিশালের জুবায়েরকে জেলা প্রশাসনের সংবর্ধনা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে  তথ্য প্রযুক্তিতে দেশ আরো এগিয়ে যাবেঃ লালমোহনে এমপি শাওন  যশোর সীমান্তে ২০০ বোতল ফেনসিডিলসহ দুইজন আটক

খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে শারীরিক কোন উপসর্গ নাই অর্ধেকের বেশি ভর্তি রোগীদের

বিশেষ প্রতিবেদক:
করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা ও করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ রোগীদের সিরিয়ালের ভোগান্তিতে পড়ছেন। খুলনা করোনা ডেটিকেডেট হাসপাতালের ১০০ শয্যায় চিকিৎসাধীন অনেকের শরীরেই কোনো উপসর্গ নেই। তাদের জ্বরের ওষুধ দিয়ে রাখা হয়েছে। বিশ্বস্ত সূত্র জানায় খুলনার শীর্ষ রাজনৈতিক নেতার অনুরোধে উপসর্গ না থাকলেও তাদেরকে করোনা ডেটিকেডেট হাসপাতালে ভর্তি নিতে হয়েছে।

এই সকল ভিআইপি রোগীদের জন্য মুমূর্ষু বা জরুরি রোগী শয্যা খালি না থাকায় হাসপাতালে ভর্তি হতে পারছেন না।খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বলেন, হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন অর্ধেকের জনের শরীরে উপসর্গ নেই। কিন্তু অনুরোধের কারণে বা অনেকের বাড়িতে আইসোলেশনের ব্যবস্থা না থাকায় তাদের ভর্তি করা হয়েছে, এই কারনে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা সংক্রমিত রোগী ভর্তি করা হচ্ছে।

একই অবস্থা হয়েছে নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রেও। ভিআইপিদের ভিড়ে সাধারণ মানুষের নমুনার রিপোর্ট পেতে সময় লাগছে ৮ থেকে ১০ দিন। জানা যায়, খুলনা মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে প্রতিদিন এক শিফটে নমুনা পরীক্ষা হয় ৯০ টির বেশি,আর তিন শিফটে ২৮০ মত নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এক হাজারের বেশি নমুনা ব্যাক লক পরীক্ষার অপেক্ষায় আছে।খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ বলেন, নমুনা পরীক্ষার সীমাবদ্ধতার কারণে ভিআইপিদের অনুরোধ থাকেই।

আর নমুনা পরীক্ষায় জনগুরুত্বপূর্ণ ও সেবামূলক কাজে জড়িত সরকারি কর্মকর্তা, চিকিৎসক, পুলিশ, সাংবাদিকদের কিছুটা অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।অন্যদিকে অভিযোগ রয়েছে, খুলনা পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তা সংশ্লিষ্টদের জানানো হয় না। এতে রিপোর্টের জন্য দিনের পর দিন অপেক্ষায় থাকতে হয়।

বিষয়টি জানার পর করোনা ভাইরাস-সংক্রান্ত জেলা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, করোনা রিপোর্ট পজিটিভ বা নেগেটিভ দুই ক্ষেত্রেই দ্রুততার সঙ্গে মোবাইল ফোনে এসএমএস দেওয়ার জন্য খুমেক হাসপাতাল ও সিভিল সার্জনের দফতরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media











© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD