জবি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক

জবি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক

ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

জবি প্রতিনিধি:

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে বন্ধ রয়েছে দেশের স্কুল-কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। আর এই সুযোগে ঘরে বসেই অনেকে মাথা ন্যাড়া করে ফেলছেন।

এদিকে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) অসংখ্য সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী, সাংবাদিকসহ কয়েকজন শিক্ষকদের মাঝেও পড়ে গেছে মাথা ন্যাড়া করার হিড়িক।

মাথা ন্যাড়া করার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আল রাফি সাকিব বলেন, মাথার চুল বড় হয়ে গেছে। গরমের মধ্যে মাথার চুল বড় থাকলে অসহ্য লাগে। কিন্তু বাইরে বের হয়ে কাটানোর কোন ব্যবস্থা নেই। তাই ঘরে বসে মাথা ন্যাড়া করে ফেলেছি।

১১ ব্যাচের শিক্ষার্থী মামুন বলেন, আমি ও আমার পরিবারসহ আরো চার সদস্য মাথা ন্যাড়া করেছি। ১২ ব্যাচের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ইমরান বলেন, গরমের কারণেই মূলত ন্যাড়া হয়েছি। ১৩ ব্যাচের সিয়াম বলেন, মাথার চুল পড়ে যাচ্ছিলো। তাই ঘরে বসে থাকার এই সময়ে মাথা ন্যাড়া করলাম। ১৩ ব্যাচের নাঈম বলেন, আমি বিশ্বাস করি কয়েক বছর পর পর মাথা ন্যাড়া করা উচিত। এতে করে মাথা পরিষ্কার থাকে এবং চুল ভাল থাকে। এই রমজানের ছুটিতে মাথা ন্যাড়া করার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু এখন দীর্ঘ ছুটি আর চুল ও বড় হয়েছিল তাই ন্যাড়া করলাম।

এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে দেশের অধিকাংশ মানুষই মাথা ন্যাড়া করে সকলে ছবি তুলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শেয়ার করছেন।

উল্লেখ্য , চীনে করোনা পরিস্থিতিতে দেশটির বেইজিংসহ সব প্রদেশ থেকে চিকিৎসক এবং নার্স সেখানে পাঠানোর আগে অনেকের মাথা ন্যাড়া করে পাঠানোর একটি ভিডিও পোস্ট করেছিল বার্তা সংস্থা রয়টার্স। সেখানে বলা হয়, আক্রান্তদের চিকিৎসা দেওয়ার সময় যেন নিজেরা এ ভাইরাসে আক্রান্ত না হন; সে জন্য চিকিৎসক এবং নার্সরা চুল ছোট করে ফেলেছেন। এছাড়া অনেকে ন্যাড়াও হয়েছিলেন। আর এ সুবাদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ন্যাড়া হওয়ার বিষয়টি বাংলাদেশেও ছড়িয়ে পড়ে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© AMS Media Limited
কারিগরি সহায়তা: Next Tech