বুধবার, দুপুর ১:৫৯, ৩রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী
প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত : ০১৭৬৬২৩৮৮১৭
জাতীয় | আন্তর্জাতিক | খেলাধুলা | বিনোদন | রাজনীতি | লাইফ স্টাইল | শিক্ষাঙ্গন |

দক্ষ সমাজ গঠনের অঙ্গিকারে মানব কল্যাণ ইউনিট

আপডেট : আগস্ট, ৩০, ২০১৯, ৫:৪৬ অপরাহ্ণ

70

ওবায়দুল কবির সম্রাট, খুলনা ব্যুরো: খুলনার কয়রা উপজেলার মানব কল্যাণ ইউনিট একটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন । কয়রা উপজেলার একঝাঁক মেধাবী উদ্যমী তরুণ মিলে ২০০৮ গঠিত হওয়া ‘ মানব কল্যাণ ইউনিট’ নামের এই সৃজনশীল চিন্তাধারায় উজ্জীবিত সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি ২০১৭ সালে জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়াড প্রাপ্ত হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আই সিটি বিষয়ক উপদেষ্ঠা জনাব সজিব ওয়াজেদ জয় এর কাছ থেকে! সংগঠনটির ১১ বছর পথ চলায় এর কার্যক্রম কয়রার সর্ব স্তরের মানুষের নজর কেড়েছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী কাজের উদাহরণ রেখে উপজেলাবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন সংগঠনের সদস্যরা। সংগঠনে সম্পৃক্ত করে নিজেকে গড়তে আপন সন্তানকে এগিয়ে দিচ্ছে সচেতন অভিবাবকরা! এই সংগঠিত সদস্যরা সংগঠনের সভাপতি আল আমিন ফরহাদ এর অক্লান্ত পরিশ্রমে আগত দিনের লক্ষ্য নির্ধারণ করে কাজ করে যাচ্ছেন নিজেদের ব্যক্তি উদ্যোগে। নির্ধারিত কাজের মধ্যে অবহেলিত মানুষের পাশে থাকার প্রত্যয়, সমাজের ক্ষতিকর হবে এমন কাজ করা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখা এবং অন্যকে বিরত রাখা, উপজেলার সকল স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে মোটিভেশন সেমিনার এর আয়োজন এবং এতিম হাফেজী পড়ুয়া ছাত পবিত্র কোরআন বিতরণ করা অন্যতম। এছাড়া রয়েছে- স্কুল-কলেজ থেকে ঝরে পরা ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুল কলেজে ফিরিয়ে আনার প্রচেষ্টা, গরিব-দুঃখী মানুষের জন্যে উন্নয়নমূলক কিছু করে দেয়া থেকে শুরু করে নদীর ভাঙ্গনকবলিত ওয়াবদার পাশে তথা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, উপজেলার পতিত জাগাগুলোতে বৃক্ষরোপনের মাধ্যমে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে। সকল উন্নয়ন মুলক কাজ করার পাশাপাশি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ জনশক্তির বাংলাদেশ গড়তে তরুন -তরুণীদের তথ্য প্রযুক্তির আওতায় নিয়ে এসে আইটি প্রশিক্ষনে কাজ করে যাচ্ছে মানব কল্যাণ ইউনিট পরিচালিত শেখ রাসেল শিশু ও প্রতিবন্ধি উন্নয়ন প্রকল্প। প্রাথমিক ভাবে নিজেদের অর্থায়নে আইটি স্কুল স্থাপন করা হয়, যেখানে সম্পূর্ণ ফ্রী প্রশিক্ষন দেয়া হচ্ছে। বর্তমানে সরকারের তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের দেওয়া উক্ত প্রকল্পের অর্থে যাবতীয় সরঞ্জামাদি ক্রয় করে প্রতিষ্ঠানটির কাজের গতি ব্যপক বৃদ্ধি পেয়েছে। সরঞ্জামাদি বাদে অন্যন্য সকল খরচ প্রতিষ্ঠান বহন করে আসছেন। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্যপ্রযুক্তি ও কম্পিউটারের বিভিন্ন প্রোগ্রাম, গ্রফিক্স ডিজাইন, আউট সোর্সিং প্রশিক্ষন নিয়ে আয় মুখী হচ্ছে যুবরা। প্রশিক্ষন সুবিধা নিচ্ছে নিচ্ছেন দুই শতাধিক তরুণ-তরুণী, রয়েছে শতাধিক সংখ্যক শিশু ও প্রতিবন্ধী। যাদেরকে দক্ষ প্রশিক্ষক ও ইউনিটের আইটি টিমের সদস্য দ্বারা চাহিদা মাফিক সুন্দর ও সাবলীলভাবে প্রশিক্ষণ প্রদান কর হচ্ছে। মানব কল্যাণ ইউনিট সূত্রে জানা যায় সুন্দর সমাজ ও সত্যিকারের স্মার্ট যুব সমাজ গঠনের অঙ্গীকারে মানব কল্যাণ ইউনিট এর এ বিভাগের পথচলা। এসব সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজ করতে গিয়ে অর্থের প্রয়োজন হচ্ছে। এসব অর্থ এখন সংগঠনের সদস্যরা মিলে বহন করে চলেছেন! উল্লেখ করা যায় যে এ সংগঠনের আশি শতাংশ সদস্যরা তরুন এবং ছাত্র। কয়রা সদরের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান এইচএম হুমায়ুন কবির বলেন, একটি শিক্ষিত, সমৃদ্ধ, প্রগতিশীল মূল্যবোধ সম্পন্ন সমাজ গঠনের দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে চলেছেন মানব কল্যাণ ইউনিট নামক এ মানবিক সংগঠনটি। আমাদের ইউনিয়নবাসীও এখন অনেক স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন এই সংগঠন নিয়ে। তাদের কাছে আমাদের প্রত্যাশাও বৃদ্ধি পাচ্ছে দিন দিন। কারন, সংগঠনের সব সদস্য শিক্ষিত এবং মার্জিত। তাই তাদের চিন্তা-চেতনায় সবাইকে সচেতন ও শিক্ষিত করা এবং ভালোর সাথে থাকার প্রয়াস লক্ষ্য করেছি। কয়রা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোস্তফা শফিকুল ইসলাম বলেন, “মানব কল্যাণ ইউনিটের সামাজিক সকল কাজ সত্যি প্রশংসার দাবী রাখে। মিলিত সংগঠনের এই যুবসমাজই পারবে অসচেতনতার অন্ধকার জনপথ থেকে আলোমুখী করাতে। আমাদেরও আশা বাংলার প্রতিটা গ্রাম, মহল্লায়, ইউনিয়ন, শহর-বন্দরে এভাবেই যুবশক্তির সংগঠন গড়ে উঠুক। কেননা, মাদকের নীল ছোবল থেকে যুবসমাজকে বাঁচাতে হলে বড়দের এগিয়ে আসতে হবে। নতুন প্রজন্ম গড়তে উঠতি বয়সের যুবকদেরকে সামাজিক কাজে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করাতে হবে। তরুনদের সঠিক তদারকির মাধ্যমে জাতির শ্রেষ্ঠ সম্পদে পরিণত করতে হবে। তাহলেই আমাদের সোনার বাংলার চারপাশ ভরে উঠবে ভালবাসায়। যেমনটি এ সংগঠনটি করে চলেছে বিনা স্বার্থে” মানব কল্যাণ ইউনিট এর সভাপতি আল আমিন ফরহাদ বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ডিভিশন ও সি আর আই এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, “শুধু শিক্ষিত নয় চাই তথ্যপ্রযুক্তির শিক্ষায় শিক্ষিত জাতি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে উন্নয়নমূলক কাজ করার পাশাপাশি, প্রযুক্তিতে জনশক্তি গড়ে তোলা ও সুন্দর সমাজ গঠনের অঙ্গীকারে আমরা আইটি স্কুল স্থাপন করি। এর একমাত্র কাজই হচ্ছে শিশু প্রতিবন্ধী ও তরুণ-তরুণীদের প্রযুক্তিতে আগ্রহী করে সুন্দর একটি প্লাটফর্মে নিয়ে আসা এবং উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে শামিল হওয়া। এ স্কুলে প্রযুক্তি শিক্ষার পাশাপাশি আমার দিচ্ছি মানবিক মানুষ হাওয়ার শিক্ষা। দিচ্ছি, সঠিক স্মার্ট কেরিয়ার তৈরির গাইড লাইন। আমরা আশা করি এ ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে পারলে আগামী ২০২৩ সালের মধ্যে আমাদের উপজেলাকে বেকার মুক্ত করা সম্ভব হবে। তার জন্য সবার আন্তরিক সহায়তা কামনা করেন তিনি।

সম্পাদক ও প্রকাশক: তানিয়া মাহমুদ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মিরপুর ১০ গোল চত্বর, ঢাকা
মোবাইল: +৮৮০১৭৬৬২৩৮৮১৭
ইমেইল: dhakaobserverbd@gmail.com

কারিগরি সহায়তা: AMS IT & Solutions

শিরোনাম :
★★ কালিয়ায় বাল্যবিবাহের দায়ে ৩ জনের কারাদন্ড ★★ একজন বিতার্কিক শেখ সুমন ★★ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিকদের প্রতিবাদ বশেমুরবিপ্রবি’তে সাংবাদিক বহিষ্কার ★★ বরিশালে জমকালো আয়োজনে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ★★ ছাত্রনেতা মাহি’র পিতার ইন্তেকাল, হাফিজ সহ বিএনপি নেতাদের শোক ★★ বিএম কলেজে ব্যতিক্রমধর্মী বিতর্ক অনুষ্ঠান ★★ অসুস্থ যুবদল নেতা কাইয়ুমের স্ত্রী ও আতিক ওসমানীর শয্যাপাশে নাজিম উদ্দীন আলম ★★ কয়রায় উপজেলা চেয়ারম্যান কর্তৃক সাংবাদিক লাঞ্চিত ★★ ভোলায় গৃহবধূ হত্যা: বিচারের দাবি ★★ দৌলতখানের গৃহবধূ নুসরাত হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে মানববন্ধন