লোহাগড়ার সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকার হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২

শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন

News Headline :
করোনায় বন্ধ হয়নি লক্ষ্মীপুরের ইটভাটার আগুন  টাঙ্গাইলে হতদরিদ্রদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী দিল বিএনপি ফোন পাবার সাথে সাথে ১৫ পরিবারের খাবার পৌছে দিলেন বরিশাল জেলা প্রশাসক মাদারীপুরের রাজৈরে সাংবাদিক পিতার উপর পৈচাশিক হামলা ভোলায় অসহায় পরিবারের পাশে গ্রামীন জন উন্নয়ন সংস্থা প্রবাসে থেকেও অসহায় পরিবারের পাশে প্রবাসী আবুল কাশেম ভোলায় সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির তীব্র নিন্দা শ্যামনগরে লিডার্সের উদ্যোগে দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করলেন এমপি জগলুল হায়দার লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে এক বৃদ্ধের মৃত্যু : বাড়ি লকডাউন নিজ উদ্যোগে হতদরিদ্রদের খাদ্যসামগ্রী দিলেন প্রবাসী জাহিদুল ইসলাম

লোহাগড়ার সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকার হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২

 মো:রফিকুল ইসলাম,নড়াইল:
নড়াইলের লোহাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা বদর খন্দকারকে (৪৫) নৃশংসভাবে খুনের ঘটনায় ওই ইউপি’র বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল শিকদারকে প্রধান আসামী করে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

নিহতের স্ত্রী নাজনীন বেগম বাদী হয়ে গত মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে লোহাগড়া ইউপি’র বর্তমান নজরুল শিকদারসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে এ মামলা দায়ের করেন। এ দিকে,চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার অন্যতম আসামী মতিউর রহমান ওরফে মুন্নাকে (৩২) গত মঙ্গলবার রাতে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার চর ঘোনাপাড়া এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। আটক মুন্না বুধবার নড়াইলের সিনিয়র চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদা’র আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকরোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান শেষে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

এছাড়াও লোহাগড়া থানার এসআই মিল্টন কুমার দেবদাসের নেত্রীত্বে অভিযান চালিয়ে (২৬ ফেব্রুয়ারি) বুধবার দুপুরে হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে লোহাগড়া থানা গেট এলাকা থেকে চরকালনা গ্রামের ইবাদত আলি মোল্লার ছেলে রুহুল মোল্লা (৫০) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামি রুহুল কে আজ (২৭ ফেব্রুয়ারি) বৃহশপ্রতিবার আদালতে প্রেরণ করা হবে। মামলা সূত্রে জানাযায়,ওই ইউনিয়নের আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাবেক চেয়ারম্যান বদর খন্দকারকে হত্যা করা হয়েছে।

 

মামলায় অন্য আসামী”রা হলেন,লোহাগড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদ শেখ ও তার ভাই শ্রমিক নেতা পিকুল শেখ, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক উপ-সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল আজাদ সুজন, লোহাগড়া ইউপি’র সাবেক সদস্য সুরুজ মোল্যা, চর কালনা গ্রামের আবু বক্কর খোকা মোল্যার ছেলে রবিউল ইসলাম তারু মোল্যা ও তার ভাই মতিউর রহমান মুন্নাসহ ১৬ জন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা লোহাগড়া থানার উপ-পরিদর্শক মিল্টন কুমার দেবদাস বলেন, মামলার আলামত হিসেবে ঘটনাস্থল থেকে একটি রাম দা, মোবইল, ট্রাভেল ব্যাগ ও একজোড়া স্যান্ডেল উদ্ধার করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামীসহ অন্য আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যহত রয়েছে।

 

আশা করছি, দ্রুত সময়ের মধ্যে অন্য আসামীদের আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে। উল্লেখ্য: বদর খন্দকার সোমবার সন্ধায় কালনা ঘাটের নিকট নিজের ইট ভাটা থেকে বাড়ি যাচ্ছিলেন,ওই এলাকর ৯৫নং টি-চর কালনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে পৌছালে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা এলোপাথারী ভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায়।

 

পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে,পরে তার অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। গত মঙ্গলবার বিকালে নিহতের নামাজে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এদিকে পুলিশ জানান,আধিপাত্য বিস্তারে পারিবারিক ও রাজনৈতিক কারনে এ হত্যা কান্ড সংগঠিত হয়েছে।

 

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন জানান,প্রধান আসামীসহ অন্যদের গ্রেফতারের জন্য সাঁড়াশী অভিযান শুরু করেছি। আশা করছি,খুবই স্বল্প সময়ের মধ্যে হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন এবং আসামীদের আইনের আওতায় আনতে সক্ষম হবো।

Please Share This Post in Your Social Media










© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD