বগুড়ায় স্ত্রীকে অন্য পুরুষ দিয়ে ধর্ষণ, অতপরঃ আগুনে পুড়ে হত্যার চেষ্টা

বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

বগুড়ায় স্ত্রীকে অন্য পুরুষ দিয়ে ধর্ষণ, অতপরঃ আগুনে পুড়ে হত্যার চেষ্টা

বগুড়া প্রতিনিধি:
বগুড়া সদরে এক গৃহবধূকে অন্য পুরুষ দিয়ে ধর্ষণের পর মাথার চুল ন্যাড়া করে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনার পর পরিবহন শ্রমিক স্বামী রফিকুল ইসলাম পলাতক। শনিবার দুপুর ১২টায় বগুড়া শহরের চকলোকমান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

 

গুরুতর আহত ওই গৃহবধূ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। নির্যাতিতা গৃহবধূ ও তার স্বজনরা বলেন, বগুড়ার গাবতলী উপজেলার পরিবহন শ্রমিক রফিকুল ইসলাম দিনাজপুর থেকে ঢাকাগামী একটি বাসে সুপারভাইজার হিসেবে কাজ করেন। তিনি গত দুই সপ্তাহ আগে স্ত্রী ও এক কন্যা সন্তান নিয়ে শহরের চকলোকমান এলাকায় নুরুল ইসলামের বাসা ভাড়া নেন। নির্যাতিতা গৃহবধূ অভিযোগ করেন, তার স্বামী বিভিন্ন সময় বাসায় অপরিচিত পুরুষ এনে তাকে দেহ ব্যবসা করতে বলত।

 

এতে তিনি রাজি না হলে তাকে অ্যাসিডে ঝলসে দেওয়ার হুমকি দেয় রফিকুল। বিষয়টি তিনি তার বাবা-মা ও শ্বশুর-শাশুড়িকে জানিয়েছেন। কিন্তু তার স্বামী নিয়মিতভাবে তাকে দেহ ব্যবসার জন্য চাপ দিতে থাকে। তিনি আরও বলেন, স্বামীর ভয়ে তিনি শনিবার সকাল থেকে বাসায় তালা দিয়ে বসে ছিলেন। বেলা ১২টার সময় তার স্বামী দুজন অপরিচিত পুরুষ নিয়ে বাসায় যায়। স্বামীর মনোভাব বুঝে তিনি দরজা খুলে দেননি।

 

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তারা বাড়ির দেয়াল টপকে ভেতরে প্রবেশ করে। এরপর রফিকুল তার স্ত্রীর হাত মুখ-বেঁধে রাখে এবং সঙ্গে আসা দুই ব্যক্তি তাকে ধর্ষণ করে। এরপর রফিকুল তার স্ত্রীর মাথার ডান পাশের কিছু অংশ ন্যাড়া করে দেয়। পরে একটি বোতলে থাকা দাহ্য পদার্থ তার শরীরে ঢেলে দিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। স্বামীর দেওয়া আগুনে তার পেট থেকে নিম্নাংশ পুড়ে যায়। এ সময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাকে উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে। শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের (ওসিসি) দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুনর রশিদ এ প্রতিবেদক-কে বলেন, ওই নারীর চিকিৎসা তদারকি করা হচ্ছে।

 

ওসিসি থেকে তাকে সব সহায়তাই দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে পুলিশকে পুরো বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে। বগুড়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার (ওসি) আছলাম আলী পিপিএম,এ প্রতিবেদক-কে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে আলামত হিসেবে আগুনে পোড়া কাপড় ও কাটা চুল সংগ্রহ করা হয়েছে। রফিকুলকে গ্রেফতার অভিযান অব্যহত আছে।

Please Share This Post in Your Social Media










© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD