আরও ১৩ জেলার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত

সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৩৫ অপরাহ্ন

News Headline :
ভোলায় জমি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত ভোলায় যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল ভোলা জেলা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা ভোলায় সামাজিক নিরাপত্তা সেবার মান উন্নয়নে নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও আজকের প্রাপ্তি’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পঞ্চগড়ে অপহরণের ৫ দিন পর কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার, ২ জন গ্রেফতার  ঢাকা কলেজে ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নেতা-কর্মীদের ক্ষোভ   ভোলার আদালতে যুগান্তকারী রায়। সাজাপ্রাপ্ত আসামি কারাগারে নয়, কিছু শর্তে থাকবেন বাড়িতে মোংলা পৌর নির্বাচনে আ.লীগ মনোনিত প্রার্থীদের ভোট দিন- কেসিসি মেয়র পঞ্চগড়ে মানবাধিকার সপ্তাহের পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠান 

আরও ১৩ জেলার প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত

বিশেষ প্রতিনিধি:
রবিবার দেশের ১৩ টি জেলার সরকারি প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক নিয়োগের কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেছেন মহামান্য হাইকোর্ট। নিয়োগ বঞ্চিত প্রাইমারি শিক্ষকদের করা রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে রবিবার ৯ ফেব্রুয়ারী বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মাহামুদুল হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ প্রদান করেন।

কামাল হোসেন ল’ এসোসিয়েটস হতে আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করা হয়। স্থগিত হওয়া জেলা গুলো হলো পাবনা, লালমনিরহাট, গোপালগঞ্জ,নীলফামারী,গাইবান্ধা,পিরোজপুর, চাঁদপুর, দিনাজপুর,ভোলা,নোয়াখালী,জামালপুর,ফেনি ও মাগুরা। এর আগে গত ২৬ জানুয়ারি হাইকোর্টের একই বেঞ্চ দেশের ২১টি জেলার প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমের ওপর ছয় মাসের স্থগিতাদেশ দেন।

২৭ জানুয়ারি একই বেঞ্চ আরও চারটি জেলায়, ২ জানুুয়ারি ১৫ জেলায় ও রবিবার ৯ ফেব্রুয়ারী ১৩ জেলার নিয়োগ কার্যক্রমের ওপর স্থগিতাদেশ দেন।স্থগিত জেলাগুলোর মধ্য ইতোপূর্বে স্থগিত জেলাও রয়েছে। গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর দেশের কয়েকটি জেলার নিয়োগ প্রার্থীদের করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রুল জারি করেন।

রুলে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ লঙ্ঘন করে গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফল কেন আইন বর্হিভূত ঘোষণা করা হবে না এবং একইসঙ্গে ঘোষিত ফল বাতিল করে প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ অনুসরণ করে নতুন ফল কেন ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

এ রুলের ফলে অনেক জেলার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করে প্রাইমারি শিক্ষা অধিদপ্তর। আইনজীবী কামাল হোসেন বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ এর ৭ ধারায় বলা হয়েছে, এই বিধিমালার অধীন সরাসরি নিয়োগযোগ্য পদগুলোর ৬০ শতাংশ নারী প্রার্থীদের, ২০ শতাংশ পৌষ্য প্রার্থীদের এবং বাকি ২০ শতাংশ পুরুষ প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হবে।

কিন্তু ২৪ ডিসেম্বর ঘোষিত ফলে সেটা অনুসরণ করা হয়নি। সে প্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট ইতোপূর্বে অনেক জেলায় স্থগিতাদেশ দিয়েছেন,আজ আরও ১৩টি জেলায় নিয়োগ কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media











© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD