টাঙ্গাইল স্টেশনে থামবে না তিনটি ট্রেন; আন্দোলনে নামবে জেলাবাসী

সোমবার, ১০ অগাস্ট ২০২০, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

News Headline :
তৃণমূল থেকে উঠে আশা জালাল উদ্দীন বেল্লাল টাঙ্গাইলে দীর্ঘস্থায়ী বন্যায় ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি লালমোহনে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন সরকার বিশ্বে মর্যাদার আসন ধরে রেখে দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছে : সাংসদ বাবু  কয়রায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব এর জন্মদিন উপলক্ষে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপন  যশোরে নিখোঁজ সেনা সদস্য নববধূসহ আটক কুড়িগ্রামের উলিপুরে চ্যানেল এস এর সাংবাদিকের ইন্তেকাল মান্দায় ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা: আটক ১ গাইবান্ধা তিন আসনের সংসদ সদস্য বলেছেন স্বাধীনতা বিরোধীরা দেশকে নিয়ে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ভোলায় দরিদ্র নারীদের মাঝে মুরগী ও খাঁচা বিতরন

টাঙ্গাইল স্টেশনে থামবে না তিনটি ট্রেন; আন্দোলনে নামবে জেলাবাসী

কাওসার আলী, টাঙ্গাইল:
টাঙ্গাইল স্টেশনে নীলসাগর, সুন্দরবন ও চিত্রা এক্সপ্রেস এ তিনটি ট্রেন স্টপেজ দিবে না বলে সিদ্ধান্ত রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও মির্জাপুর স্টেশনে সুন্দরবন ও চিত্রা এক্সপ্রেস এবং জয়দেবপুর স্টেশনে দ্রুতযান ও চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেন যাত্রাবিরতি করবে না।আগামী ১০ই জানুয়ারি থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইল স্টেশন মাস্টার সোহেল খান। তবে কি কারণে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা জানাতে পারেননি তিনি।সোহেল খান জানান, ঢাকা –খুলনা-ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী সুন্দরবন ও চিত্রা এক্সপ্রেস এবং ঢাকা-চিলাহাটি-ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী নীলসাগর এক্সপ্রেসের আপ এবং ডাউন ট্রিপ টাঙ্গাইল স্টেশনের যাত্রা বিরতী বাতিল করা হয়েছে।

 

এছাড়াও মির্জাপুর স্টেশনে সুন্দরবন ও চিত্রা এক্সপ্রেস এবং জয়দেবপুর স্টেশনে দ্রুতযান ও চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেন যাত্রাবিরতি করবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আগামী ১০ই জানুয়ারি থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে। এ সিদ্ধান্তের ফলে ভোরে টাঙ্গাইল থেকে ঢাকা যাওয়ার জন্য শুধু একতা ছাড়া আর অন্য কোনও ট্রেন পাওয়া যাবে না। অন্যদিকে, সকাল ছয়টার সময় ধূমকেতুর পর সকাল সোয়া ১০টায় টাঙ্গাইলে আসার ট্রেন পাওয়া যাবে।

 

বিকেলে ঢাকা যাওয়ার জন্য পাওয়া যাবে শুধু দ্রুতযান এক্সপ্রেস।টাঙ্গাইল থেকে ইশ্বরদী, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনাগামী কোনও ট্রেন থাকবে না। এছাড়াও সৈয়দপুর, নীলফামারী, চিলাহাটিগামী কোনও ট্রেনও টাঙ্গাইলে যাত্রাবিরতি করবে না।এদিকে রেল কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তের কারণে ব্যাপক দুর্ভোগ পোহাতে হবে টাঙ্গাইলের রেল যাত্রীদের। তাদের নির্ভর করতে হবে বাসের ওপর। এতে যে সমস্ত যাত্রীরা ট্রেনে ভ্রমণ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করতেন তাদের এ সিদ্ধান্ত চরম ভোগান্তির সৃষ্টি করবে।

 

সবচেয়ে বেশী দুভোর্গে পরবেন, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও কর্মজীবি, যাদের বাড়ি খুলনা বিভাগে।এদিকে, টাঙ্গাইল জেলাবাসী রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জোড়ালো প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। তারা রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহরের জন্য জেলার এমপি, জনপ্রতিনিধি ও নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। অন্যথায় জেলাবাসী রেলপথ অবরোধসহ ব্যাপক আন্দোলনের দিকে যাবে বলে ফেসবুকে পোস্ট দিচ্ছেন।

Please Share This Post in Your Social Media











© AMS Media Limited
Developed by: AMS IT BD